লাইসার/لَيْسَ মাধ্যমে জুমলা ইসমিয়ার না-বোধক বাক্য গঠন

লাইসা/لَيْسَ শব্দটি (ফি’লটি) আরবি ব্যাকরণে অনন্য। কারণ এতে ফি’লের মত কিছু বৈশিষ্ট্য থাকলেও এটি নিয়মিত ফি’ল নয়। ইংরেজি ব্যাকরণের auxiliary verb am/is/are not প্রকাশ করতে লাইসা/لَيْسَ ও এর অন্যান্য ফর্ম ব্যবহার করা হয়। আরবি ব্যাকরণের একটি নিয়মিত ফি’লের মতো, لَيْسَ এর অতীত কালের ১৪ টি ফর্ম রয়েছে। যদিও অতীত কালের প্যাটার্ন অনুসরণ করে ১৪ টি সর্বনামের জন্য ১৪ টি ফর্ম তৈরী হয়, কিন্তু অর্থগত দিক থেকে বর্তমান কালের অর্থ দেয়। অন্যদিকে, বর্তমান বা আমর ফর্মের জন্য কোনো ফর্ম নেই।নিচের টেবিলে, শুধুমাত্র পবিত্র কুরআনুল কারীমে ব্যবহৃত ফর্মগুলি বাংলা এবং ইংরেজি অর্থ সহ দেখানো হলো :

বহুবচনএকবচন
هُمْ لَيْسُوا هُوَ لَيْسَ
তারা নয়__
They are not
সে/এটা নয়__
He is not/It is not
هِيَ لَيْسَتْ
সে নয়__
She is not
أَنْتُمْ لَسْتُمْأَنْتَ لَسْتَ
তোমরা নও__
You are not
তুমি নও__
You are not
أَنْتُنَّ لَسْتُنَّ
তোমরা নও__
You are not
أَنَا لَسْتُ
আমি নই _
I am not

যেহেতু لَيْسَ/লাইসার মধ্যেই একটি লুকায়িত সর্বনাম আছে, বর্তমান কালের জুমলা ইসমিয়াকে না-বোধক করার সময় আলাদা করে সর্বনাম ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই।নিচে উদাহরণের মাধ্যমে বুঝার চেষ্টা করি :

খবরমুবতাদা
مُحْسِنٌ
সৎকর্মশীল
هُوَ
সে
হা-বোধক
مُحْسِنً
সৎকর্মশীল
لَيْسَ
সে নয়
না-বোধক
بِمُحْسِنٍ
মোটেও সৎকর্মশীল
لَيْسَ
সে নয়
না-বোধক**
ظَالِمُونَ
অন্যায়কারী
أَنتُمْ
তোমরা
হা-বোধক
ظَالِمِيْنَ
অন্যায়কারী
لَسْتُمْ
তোমরা নও
না-বোধক
بِظَالِمِيْنَ
মোটেও অন্যায়কারী
لَسْتُمْ
তোমরা নও
না-বোধক**
مُسْلِمٌ
একজন মুসলিম
الرَّجُلُ
লোকটি
হা-বোধক
مُسْلِمًا
একজন মুসলিম
لَيْسَ الرَّجُلُ
লোকটি নয়
না-বোধক
بِمُسْلِمٍ
মোটেও একজন মুসলিম
لَيْسَ الرَّجُلُ
লোকটি নয়
না-বোধক**
** অধিক জোর দিয়ে বলতে চাইলে এই প্যাটার্ন ব্যবহার করা হয়।
  • মনে রাখবেন لَيْسَ কে মুবতাদা বলা হয় না। বরং لَيْسَ র লুকায়িত সর্বনাম/রফা ফর্মের outside ইসমকে বলা হয় ইসম লাইসা لَيْسَ
  • ইসম লাইসা/لَيْسَ লুকায়িত সর্বনাম না হয়ে বাহ্যিক/outside ইসম ও হতে পারে। সেক্ষেত্রে বাহ্যিক ইসমটি রফা ফর্মে হবে ।
  • অন্যদিকে খবরকে বলা হয় খবর লাইসা/لَيْسَ
  • বাক্যে মুতাআল্লিক বিল খবর লাইসা/لَيْسَ ও থাকতে পারে
  • খবর লাইসা/لَيْسَ নাসব ফর্মে হয় ।
  • তবে অধিক জোর দেয়ার ক্ষেত্রে খবর লাইসা/لَيْسَ কে হারফে জার্ بِ এর মাধ্যমে জার্ -মাজরূর বানানো হয়।

ইন শা আল্লাহ এই পোস্টে পবিত্র কুরআনুল কারীম থেকে অনেক উদাহরণ পাবেন

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!