স্টেটাস/Status

আরবী ব্যাকরণে স্টেটাস অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি ধারণা/Concept. স্টেটাস দিয়ে একটি ইসম বাক্যে কি ভূমিকা/মর্যাদায় অবস্থান করছে, তা বুঝানো হয়।যেমন একটি বাক্যে একটি ইসম কখনো বাক্যের কর্তা/Subject হিসেবে কাজ করতে পারে, কখনো কর্ম/Object হিসেবে কাজ করতে পারে আবার কখনো সম্বন্ধসূচক/Possessive Adjective ভূমিকায় থাকতে পারে। স্টেটাস/Status শুধুমাত্র ইসমের জন্য প্রযোজ্য।

উদাহরণস্বরূপ নিচের তিনটি বাক্য লক্ষ্য করি :

  • রাতুল ইংরেজি পড়ায় (Ratul teaches English) -এখানে রাতুল কর্তা/Subject হিসেবে কাজ করছে
  • কিন্তু আমি রাতুলকে আরবি পড়াই (But I teach Ratul Arabic) -এখানে রাতুল কর্মবাচক/Object হিসেবে কাজ করছে
  • রাতুলের উচ্চারণভঙ্গি অনেক ভালো (Ratul’s accent is much better) -এখানে রাতুল সম্বন্ধসূচক/Possessive Adjective হিসেবে কাজ করছে

আরবি ব্যাকরণে স্ট্যাটাস তিন প্রকার: 

  • রফা/رفع/কর্তা/Subject
  • নাসব/نصب/কর্মবাচক/Object
  • জার্/جار/সম্বন্ধসূচক/Possessive Adjective

প্রতিটা ইসম উপরের তিনটি স্ট্যাটাসে থাকতে পারে। কখন কোন স্ট্যাটাসে থাকবে ইহা নির্ভর করবে বাক্যে কোন ভূমিকায় আছে। স্টেটাস পরিবর্তনের সাথে সাথে কিছু ইসমের চেহারা পরিবর্তন হয় আবার কিছু ইসমের চেহারা পরিবর্তন হয়না। এই কারণগুলো বিস্তারিত আমরা পরবর্তী পোস্টগুলো থেকে পড়বো ইন শা আল্লাহ। নিচের টেবিল থেকে একই ইসম ভিন্ন ভিন্ন স্ট্যাটাসে দেখতে কেমন হয় ইহার একটা ধারণা নিবো :

জার্ নাসব রফা ইসম
صَالِحٍصَالِحًاصَالِحٌএকজন নেককার ব্যক্তি
مُبَشِّرٍمُبَشِّرًامُبَشِّرٌএকজন সুসংবাদদাতা 
شَاهِدٍشَاهِدًاشَاهِدٌএকজন  সাক্ষ্যদাতা 
سَاجِدٍسَاجِدًاسَاجِدٌএকজন সিজদাকারী 
كَافِرٍكَافِرًاكَافِرٌএকজন অবিশ্বাসী 
ظَالِمٍظَالِمًاظَالِمٌএকজন জুলুমকারী 
خَاسِرٍخَاسِرًاخَاسِرٌএকজন ক্ষতিগ্রস্ত
مُحَمَّدٍمُحَمَّدًامُحَمَّدٌমুহাম্মাদ (নাম)
نَاصِرٍنَاصِرًانَاصِرٌএকজন সাহায্যকারী
كُمْكُمْأَنْتُمْতোমরা
هٰذَاهٰذَاهٰذَاএটা
বাক্যে ইসমটি কোন ভূমিকায় আছে ইহার উপর নির্ভর করে ইসমের অর্থ কিছুটা পরিবর্তিত হবে যেমন তোমরা -> তোমাদেরকে -> তোমাদের ইত্যাদি

এই লিংক থেকে পরবর্তী পোস্ট ” হেভি বনাম লাইট ” পড়তে পারেন

3 comments

  1. আলহামদুলিল্লাহ, কুরআন অনুধাবনের জন্য আরবি ব্যাকরণ শিখতে আগ্রহীদের কাছে এটি অসাধারণ, সহজ এবং সাবলীল একটি রিসোর্স। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ’লা এর মাধ্যমে কুরআনের জ্ঞান-পিপাসুদের উপকৃত করুন। আমীন।

  2. আলহামদুলিল্লাহ। একটা ছোট্ট সাজেশন। উদাহরণ হিসেবে বাক্যগুলো কোরআনের আয়াত থেকে হলে আরও ভাল হতো। তাহলে কোরআন অর্থ শেখা দ্রুত হতো। যেমন-
    خَلَقَ ٱلْأَرْضَ
    তিনি পৃথিবী সৃষ্টি করেছিলেন (২০ঃ৪ )
    তিনি (কর্তা), পৃথিবী (কর্ম) , সৃষ্টি করা (ক্রিয়া ) ……

  3. Solihu, Sohilan and Solihin why they are Rofa’ nasob and Jar? If you pls give example would be easier to understand for me. JazakaAllah.

Comments are closed.

error: Content is protected !!